বুমরাহো নো বলে আউট হওয়ার পর মুখ খুললেন ফকর জামান

Tue 27th Jun, 2017 Author: Lokesh Dhakad

ICC Champions Trophy

পাকিস্তানের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ের অন্যতম কারিগর এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।গ্রুপ লিগে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে মরণ-বাঁচন ম্যাচে অর্ধশতরানের ইনিংস খেলেন তিনি। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৫৭ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। দুটি ম্যাচেই জয়ী হয় পাকিস্তান। এরপর ফাইনালটা তো ইতিহাস। ভারতের বিরুদ্ধে ১০৬ বলে ১১৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। লন্ডনের ওভালে মূলত তাঁর ইনিংসটাই ভারতীয় বোলিং আক্রমণের ধার ভোঁতা করে দিয়েছিল।

এতদিন পর সেই নো-বল নিয়ে মুখ খুললেন পাকিস্তানের এই তরুণ ওপেনার।

ঠিক কী মনে হয়েছিল তখন ? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বললেন, “যখন আমি কট বিহাইন্ড হয়েছিলাম, তখন কার্যত আমার হৃদপিন্ড স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল। কয়েক সেকেন্ডের জন্য আমি হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। কী করব, বুঝে উঠতে পারছিলাম না। তারপর ধীরে ধীরে ড্রেসিংরুমে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। কারণ আমার সব আশা এবং স্বপ্ন শেষ হয়ে গিয়েছিল। আমি শুধু এটাই ভাবছিলাম, কীভাবে এই জায়গায় নিজের উইকেটটা হারিয়ে ফেললাম আমি। বড় রান করার লক্ষ্যেই আমি মাঠে নেমেছিলাম। সেই জায়গায় কীভাবে মাত্র ৩ রানে আমি আউট হয়ে গেলাম।

এটাই ভারতের বিরুদ্ধে ফখর জ়ামানের প্রথম ম্যাচ ছিল। তবে এর আগে টুর্নামেন্টের তিনটি ম্যাচে তিনি ৩১, ৫০ এবং ৫৭ রান করেছেন। ফলে একটা আত্মবিশ্বাস তৈরি হয়েই গিয়েছিল। তিনি আরও বললেন, “ফাইনাল ম্যাচটা নিয়ে আমি অনেক পরিকল্পনা করেছিলাম। আমি এই মানসিকতা নিয়ে মাঠে নেমেছিলাম যে ভালো কিছু করতেই হবে। কারণ ভারত-পাকিস্তান এমন একটা ম্যাচ যেখানে ভালো খেলতে পারলে নায়কের সম্মান দেওয়া হয়।”

কিন্তু এই সময় আম্পায়ার যখন আমাকে অপেক্ষা করতে বললেন তখন একটু আশার আলো দেখলাম। মনে হচ্ছিল নতুন জীবন পেয়েছি। মনে মনে ভাবছিলাম, বলটা যদি নো হয়, তাহলে দিনটা নিশ্চিতভাবেই আমার।
পরে দেখা গেল, অল্পের জন্য নো বল করেছেন বুমরাহ। আউট হয়েও ফের খেলার সুযোগ দুহাতে লুফে নেন ফকর। আর পিছন ফিরে তাকাননি।